প্রবাসীদের জন্য সুখবর

প্রবাসীদের জন্য সুখবর দিয়েছে ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের সংগঠন এবিবি ও বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনকারী ব্যাংকগুলোর সংগঠন বাফেদা। এখন থেকে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সে কোনো চার্জ লাগবে না। এছাড়া দেশের বাইরে ছুটির দিনে নিজস্ব এক্সচেঞ্জ হাউস খোলা রাখারও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। চলমান ডলার সংকটে বৈধভাবে রেমিট্যান্স বাড়াতে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

রবিবার (৬ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সোনালী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের সংগঠন এবিবি ও বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনকারী ব্যাংকগুলোর সংগঠন বাফেদা এ সিদ্ধান্ত নেয়। বৈঠকে উভয় সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিময় সভা হয়েছে। সভার সিদ্ধান্ত অনুসারে এখন থেকে ব্যাংকগুলো ১০৭ টাকায় রেমিট্যান্স এবং ১০০ টাকায় রপ্তানি আয় সংগ্রহ করবে।

প্রবাসী বাংলাদেশিদের রেমিট্যান্স পাঠাতে চার্জ দিতে হবে না। কোনো প্রকার খরচ ছাড়াই প্রবাসীরা সোমবার (৭ নভেম্বর) থেকে দেশে রেমিট্যান্স পাঠাতে পারবে। তারা ছুটির দিনগুলোতেও রেমিট্যান্স পাঠাতে পারবেন। আমরা ছুটির দিনেও এক্সচেঞ্জ হাউজ খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

ডলার সংকট নিরসনে গত ২৩ অক্টোবর ডলার কেনার সর্বোচ্চ দর ৫০ পয়সা কমিয়ে ১০৭ টাকা করা হয়। রপ্তানি বিল ৫০ পয়সা বাড়িয়ে ৯৯ টাকা ৫০ পয়সা করা হয়। যা গত ২৬ সেপ্টেম্বর এক সভায় ১০৭ টাকা ৫০ পয়সা প্রবাসী আয়ে এবং রপ্তানি আয়ে ৯৯ টাকা নির্ধারণ করা হয়। গত ১১ সেপ্টেম্বর প্রথম ব্যাংকারদের সভায় এক্সপোর্ট প্রসিডে ৯৯ টাকা ও রেমিট্যান্সের ডলার ১০৮ টাকায় কেনার সিদ্ধান্ত হয়।

বৈদেশিক মুদ্রার চরম সংকটের সময়ে বৈধ পথে প্রবাসী আয় বা রেমিট্যান্স বাড়াতে নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। চাহিদা মেটাতে তৎপরতা বাড়িয়েছে ব্যাংকগুলো।